Sylhet
November 21st, 2018
Islam / ধর্মচিন্তা
ক্বদর রাতের মেয়াদ কতক্ষণ
November 29th, 20102,907 views

ক্বদর রাতের মেয়াদ কতক্ষণ


ক্বদর ও মর্যাদার রাতের বর্ণনায় কুরআন ও হাদীসে 'লাইলাতুল' শব্দটি ব্যবহূত হয়েছে। সচরাচর 'লাইলাতুন' বলা হয় সূর্যাস্ত থেকে সূর্যোদয় পর্যন্ত সময়টাকে। কিন্তু 'লাইলাতুন' এর বহুবচন যখন 'লায়ালী' ব্যবহূত হয় তখন তার অর্থ কখনো দিন-রাত দুইই বুঝায়। যেমন আলস্নাহ রাব্বুর 'আলামীন বলেন:দশ রাতের কসম।

(সূরা ফজর ৮৯: ২ আয়াত)

এখানে লায়ালীন শব্দটির ব্যাখ্যায় মহানবী (স.) বলেন: তা হল, যুলহিজ্জাহ মাসের প্রথম দশদিন। (আহমাদ, ইবনে কাসীর ৪র্থ খণ্ড- ৫০৬ পৃ:, হাকিম, রুহুল মাআ-নী, আমপারা খণ্ড-১১৯ পৃ:)

লাইলাতুন শব্দের দ্বি'বচনেও রাত ও দিন দু'টোই গণ্য করা হয়। যেমন কেউ যদি এ মানত করে যে, সে দু'রাতের জন্য ই'তিকাফ করবে তাহলে সেটাকে দু'রাত ও দিন গণ্য করা হয়।

(তাফসীরে কাবীর ৮ম খণ্ড ৪৪৩ পৃ:, রুহুল মাআনী আমপারা ১৯৩ পৃ:)

তেমনি লাইলাতুল ক্বদরের মধ্যে 'লাইলাতুন' শব্দটির ভেতরে দিনও শামিল কি না? এর উত্তরে এক মহামান্য তাবেঈ আলস্নামা আমের ইবনে শারাহীল শা'বী (রহ) বলেন: অর্থাৎ ক্বদরের দিনটি রাতের মত এবং রাতটি দিনের মত। (মুসান্নাফ ইবনে আবী শায়বা)

এক সাহাবী হাসান ইবনে হুর (রা.) বলেন, ক্বদরের রাত শেষে ফজর উদিত হবার পর জিব্রাইল (আ.) প্রথম উপরে চড়েন এবং তারপর এক এক করে অন্যান্য ফেরেশতাগণ চড়তে থাকেন। তারপর জিব্রাইল (আ.) ও তাঁর সাথীগণ আসমান ও যমীনের মাঝখানে দাঁড়িয়ে সারাটা দিন দু'আ ও ক্ষমা প্রার্থনা করেন মু'মিন মু'মিনাদের জন্য এবং যে ব্যক্তি ঈমানের অবস্থায় ও নেকীর আশায় রমজানের সিয়াম রেখেছিল তার জন্যও ফেরেশতারা দু'আ এস্তেগফার করেন। অতঃপর যখন সন্ধ্যা হয় তখন তারা পৃথিবীর নিকটবতর্ী আসমানে প্রবেশ করতে থাকে। (তাফসীর ইবনে কাসীর ৪র্থ খণ্ড-৫৩৬ পৃ:)

এ বর্ণনা দ্বারা পরিষ্কার প্রমাণিত হয় যে, ক্বদরের মেয়াদ এক সূর্যাস্ত থেকে আর এক সূর্যাস্ত পর্যন্ত অর্থাৎ চবি্বশ ঘন্টা।

- আব্দুলস্নাহ আল বাকী